আক্কেলপুর পৌর নির্বাচন উপলক্ষে আগাম প্রচারণা ও জনপ্রিয়তায় শীর্ষে-মেয়র প্রার্থী স্বপন আকন্দ

Share It
  • 15
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    15
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ- নিরেন দাস।জয়পুরহাটের আক্কেলপুর আসন্ন পৌরসভা নির্বাচন ডিসেম্বর মাসের আগে প্রথম দফায় অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনায় অন্যান্য মেয়র পদপ্রার্থীরা আগাম প্রচারণা চালালেও বর্তমানে প্রচারণা ও জনপ্রিয়তায় শীর্ষে সবার চেয়ে এগিয়ে আছেন, আওয়ামীলীগের দলের দূরসময়ের বিনা স্বার্থে নিজদের অর্থায়নে জয়পুরহাটে আওয়ামীলীগকে টিকিয়ে রাখা একমাত্র পরিবার এবং বিএনপি জামায়াতের নির্যাতনের হাতে নির্যাতিত নেতাকর্মীদের সহ পুরো জেলাকে সার্বিক সহযোগীতা কারি আক্কেলপুর পৌর আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও ক্রিয়া অনুরাগী বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) এর সন্মানিত সদস্য, আওয়ামীলীগের দূরসময়ের জেলার সর্বপ্রথম সাবেক সংসদ মহুরম আব্দুর রাজ্জাক আকন্দের ছোট ভাই দেশ ও দলপ্রেমী, মুক্তিযোদ্ধা ঐতিহ্যবাহী পরিবারবের সন্তান বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মেয়র পদপ্রার্থী আলহাজ্ব এনায়েতুর রহমান আকন্দ স্বপন। তার এই নির্বাচনী পথসভায় জন সাধারনের মাঝেও ইতিমধ্যে ভোটের আমেজ শুরু হয়ে গেছে।
বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনয়ন প্রত্যাশী মেয়র পদ-প্রার্থী আলহাজ্ব এনায়েতুর রহমান আকন্দ স্বপনের প্রতিনিয়ত ধারাবাহিকতা নিবার্চানী পথসভা উপলক্ষে শুক্রবার (১৫- অক্টোবর) সন্ধা সাড়ে ৭ টায় পৌর এলাকার ৪ নং ওয়ার্ডের আলেক মামার মোড় নামক স্থানে ব্যাপক জন-সাধারনের উপস্থিতি ঘটে।
এই মেয়র নির্বাচনী পথসভায় আমার প্রতি ভালোবাসার তাগিতে জন-সাধারণের উপস্থিতির জন্য তাদেরকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন যুগযুগ ধরে এবং এখনো নিজ জেলা জয়পুরহাট সহ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের জন্য আমার পরিবার সর্বাধিক অবদান রেখেই চলেছে যা সরকারি দলের কোন প্রকার সুবিধা পাবার আশায় নয়, যা প্রবীণ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ সহ আপনারাও জানেন এবং আমিও ছাত্রজীবন থেকে পারিবারিক সূত্রেধরে আওয়ামীলীগ ছাত্র রাজনীতি শুরু করি ধীরেধীরে যুবলীগ এর আওয়ামীলীগ তারপরেও আমি একজন ব্যবসায়ী,নামাজি হাজী মানুষ হওয়াই বিভিন্ন ব্যস্ততায় থাকতে হয় তাই দলীয় সকল কর্মকাণ্ডে সকল প্রকার সহযোগীতা করলেও দলীয় কিছু অসাধু স্বার্থলোভী নেতৃত্বদানকারীদের জন্য রাজনীতির থেকে একটু দূরে ছিলাম শুধু নয় আমি জীবনে নির্বাচন করবো তাও কখনো চিন্তাও করিনি, কিন্তু আপনারা জানেন গত পৌরসভা নির্বাচনে আমাকে দলীয় প্রার্থী করার মিথ্যা আশ্বাস প্রদান করা হলেও পুনরায় আবারও রাজনীতি শুরু করি কিন্তু পরে আমার সাথে বেইমানি করে দলীয় মনোনয়ন দেয়া অন্য আর এক জনকে। সেই প্রার্থীর স্বাদ আপনারা এ ৫ বছর নিশ্চয় পেয়েছেন,সত্যি কি তারা দলের জন্য নয় বরং নিজেদের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটিয়েছেন যা এ পাঁচ বছরে আপনারা দেখতেই পেরেছেন। তবুও তাদের লোভের কমতি কোথায় একজন ব্যক্তির কতটা পদের প্রয়োজন হয়।বলে তিনি আরও বলেন আমি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বুকে ধারণ করে ছাত্রলীগ,যুবলীগ,আওয়ামীলীগের গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকেই রাজনীতি করেছি কখনো নিজের স্বার্থের জন্য তাই আমার প্রাণপ্রিয় নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা”র নিকট আমার একটাই দাবী আপনি মনোনয়ন দিলে আমি নির্বাচন করবো কিন্তু মনোনয়ন না দিলে নির্বাচন করবো না। পাশাপাশি দেশব্যাপী ছড়িয়ে থাকা প্রধানমন্ত্রীর গোপন গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তাদের অনুরোধ জানাচ্ছি আপনারা সঠিক রিপোর্ট গুলো আমার প্রাণপ্রিয় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট পৌঁচ্ছাবেন। তিনি আরও বলেন এবার পৌরবাসী দুর্নীতি নয় উন্নয়ন চাই, তাই পৌরবাসী আমার নিবর্চানী সভায় উপস্থিত হয়ে পথসভার পরিবেশ কে মুখরিত করেছেন। আপনারা আজ আমার ডাকে সাড়া দিয়ে আমার পাশে আসেন। আমি মেয়র নির্বাচিত হয়ে আপনাদের সাথে মিলে-মিশে পৌর এলাকার সকল সমস্যার সমাধান করে উন্নয়ন করবো যদি দল আমাকে মনোনীত করে।
এমসয়ে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন,উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মজিবর রহমান, পৌর আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক সাবের রেজা সুরুজ,উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি এসএম ফারুক হোসেন,উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি সাজ্জাদুর করিম সোহাগ,পৌর ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক ধীরেন চন্দ্র দাশ, ছাত্রনেতা হৃদয় হালিম কাজী সহ আরও অন্যান্য নেতৃবৃন্দরা।
দুই ঘণ্টাব্যাপী পথসভায় শেষে বিশ্ব নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, জয়পুরহাট-২ আসনের সাংসদ, জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন-এমপি সহ সকলের দীর্ঘ আয়ু কামনা করে মিলাদ মাহফিল আয়োজন করা হয় ও তোবারক বিতরণ করা হয়।
—-

Share It
  • 15
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    15
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here