কিছু করে দেখাতে ব্যাকুল ছিলেন সাইফ

Share It
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের দ্বিতীয় ওয়ানডের উইকেট ব্যাটসম্যানদের অনুকূলে থাকলেও বল হাতে চমৎকার বল করে সফরকারীদের রানের চাকা আটকে রাখেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। বিপরীতে লাভ করেন ৪৫ রান খরচায় ৩ উইকেট। যা তাকে এনে দেয় ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

   ম্যাচ সেরার পুরস্কার হাতে সাইফউদ্দিন।

ম্যাচ শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বল হাতে সফলতার পাশাপাশি প্রথমবারের মতো ম্যাচ সেরার পুরস্কার জয়ের অনুভূতি জানান এ অলরাউন্ডার।

দলে প্রত্যাবর্তনের পর আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে এবারই প্রথম ম্যাচ সেরার পুরস্কার পাওয়ার অভিজ্ঞতা হলো তার। প্রথমবারের মতো ম্যাচ সেরার পুরস্কার গ্রহণের অনুভূতি কেমন কাজ করতে জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, “প্রথমবারের মতো ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতায় উচ্ছ্বসিত। সত্যিই খুব খুশি।”

এরপর তার দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করা কিছু কারণ ব্যাখ্যা করেন তিনি। বল হাতে ১০ ওভার থেকে ৪৬ রান খরচ করে প্রতিপক্ষের গুরুত্বপূর্ণ ৩ উইকেট শিকার করেন তিনি। ডেথ ওভারেও বুদ্ধিদীপ্ততার প্রমাণ দিয়ে ধরে রাখেন রানের চাকা। এমন পারফর্ম্যান্সের পেছনে ঠিক কি সহায়তা করেছিল তাকে? তা ব্যাখ্যা করতে গিয়ে ২১ বছর বয়সী এ অলরাউন্ডার জানান,

“এখানের (জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম) কন্ডিশন ও পিচের আচরণ আমি ভালোভাবেই জানি। যার ফলে এ ধরণের ট্র্যাকে কীভাবে উইকেট টু উইকেট বল করতে হয় তা আমার জানা ছিল।”

আগের ম্যাচে প্রয়োজনের মুহূর্তে অর্ধশতক করার অভিজ্ঞতা আর আজকে বল হাতে জ্বলে ওঠা এ সমস্ত বিষয়গুলো তাকে আত্মবিশ্বাসী করে তুলছে বলেও এসময় উল্লেখ করেন তিনি। “আমি শেষ দুটি ম্যাচে ভালো করেছি যা আমার আত্মবিশ্বাস দিনের পরিক্রমায় বাড়াতে সাহায্য করছে।”

সাইফউদ্দিনের জ্বলে ওঠার দিন এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ। তাই নিয়মরক্ষার সিরিজের শেষ ম্যাচে ২৬ অক্টোবর মাঠে নামবে টাইগাররা। একই সময়ে একই ভেন্যুতে ম্যাচটি শুরু হবে দুপুর ২.৩০ মিনিটে।


Share It
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here