তিন হাজার ৬শ’ কোটি টাকা পাচারের অভিযোগ নিয়ে বিদেশে থাকা পি কে হালদার রোববার (২৫ অক্টোবর) দেশে ফিরছেন না।

ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিস লিমিটেডের (আইএলএফএসএল) এর আইনজীবী ই-মেইল করে অ্যাটর্নি জেনারেলেরে কার্যালয় ও দুর্নীতি দমন কমিশনকে এ তথ্য জানিয়েছে।

এ বিষয়ে শনিবার (২৪ অক্টোবর) বিকেলে দুদকের আইনজীবী খুরশিদ আলম খান জানান, পিকে হালদার অসুস্থজনিত কারণে আগামীকাল দেশে ফিরছেন না। ই-মেইলের মাধ্যমে আমাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে আইএলএফএসএল।

এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রশান্ত কুমার হালদার (পি কে হালদার) পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছিলেন। প্রতিষ্ঠানটির গ্রাহকদের অভিযোগের মুখে বিদেশ পালিয়ে যান পি কে হালদার। পরে অর্থ পাচারের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

এর আগে, আইএলএফএসএল আদালতকে জানায়, ‘আত্মসাত করা অর্থ ফেরত দিতে’ জীবনের নিরাপত্তার জন্য আদালতের আশ্রয়ে দেশে ফিরতে চাইছেন পি কে হালদার।

এর প্রেক্ষিতে এক আদেশে হাইকোর্ট বলেন, পি কে হালদার দেশে আসলেই তাকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করতে হবে। এরপরই নিজের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে পি কে হালদার।

গত ২১ জানুয়ারি প্রায় ৩ হাজার ৬০০ কোটি টাকা পাচার করার ঘটনায় ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিস লিমিটেডের পরিচালক প্রশান্ত কুমার হালদারসহ (পিকে হালদার) ১৯ জনের সব সম্পদ, ব্যাংক হিসাব জব্দ ও পাসসপোর্ট আটকানোর নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিস লিমিটেডে বিনিয়োগকারী দুই জনের আবেদনের প্রেক্ষিতে এ আদেশ দেওয়া হয়।

জানা গেছে, পি কে হালদার বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বে থেকে লোপাট করেছেন অন্তত সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা। পি কে হালদার প্রথমে রিলায়েন্স ফাইন্যান্স এবং পরে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ (এমডি) বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। এমন আরোও কিছু প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস, পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস, এফএএস ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড ও বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি (বিআইএফসি)।

এসব প্রতিষ্ঠানে গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে প্রায় ৩ হাজার ৬০০ কোটি টাকা আত্মসাত ও বিদেশে পাচার করেছেন পি কে হালদার। নিজেও পাড়ি জমিয়েছেন বিদেশে বলে অভিযোগ রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here