মঙ্গলবার (৭ জুলাই) দিবাগত রাতের কোনো এক সময় এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

উপজেলার শোমসপুর গ্রামের প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা আক্তার আলীর বাড়ির একটি একটি অংশে আগুন ধরে। এ সময় ফায়ার সার্ভিস ও প্রতিবেশীরা চেষ্টা করে আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। তবে গুদামঘরটি সম্পূর্ণ পুড়ে যায়।

সকালে এ ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধার ভাই আজমল সরদার গুরুতর আহত হয়। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার পর সকাল থেকে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী হামিদা বানুর অভিযোগ, বসত বাড়ির এক শতক জমি নিয়ে প্রতিবেশি সেনা সদস্য রফিকের সাথে দীর্ঘদিনের বিরোধ রয়েছে। সেনা সদস্য রফিক ও তার ছেলে সেনা সদস্য রাসেল তার বাড়িতে আগুন দিয়েছে। অগ্নিকাণ্ডে বাড়ির একটি বাঁশের চারা ভাঙ্গা নিয়ে প্রতিপক্ষের সাথে তাদের বিরোধ হয়েছিল।

এ ঘটনার সূত্র ধরে গভীর রাতে প্রতিপক্ষরা তার বাড়ির ঘরে আগুন দিয়েছে। এ ছাড়া তার এক দেবরের উপর হামলা করেছে।

তবে ছুটিতে থাকা সেনা সদস্য রফিক তার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ মিথ্যা দাবি করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here