জৈন্তাপুরে পুলিশের অভিযানে অস্ত্রসহ আটক-৫, ডাকাতির ঘটনায় মামলা ২টি

Share It
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নাজমুল ইসলাম, জৈন্তাপুর- সিলেটের জৈন্তাপুরে থানা পুলিশের অভিযানে ডাকাতির ঘটনায় দায়ের করা মামলার ২৪ ঘন্টার মধ্যে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২টি ওয়ান শুটার পাইপগান সহ ৫ডাকাত আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানাযায়, ২০ ফেব্রয়ারী রাত ২.৩০ মিনিটে ১৫-১৬ জনের একটি মুখোশধারী ডাকাতদল উপজেলার নিজপাট ইউনিয়নের পূর্ব লক্ষীপ্রসাদ গ্রামের ডাক্তার সিদ্দিক মিয়ার বাড়ীর বারান্দার কলাপসিবল গেইটের লক ও কাঠের দরজার লক ভাঙ্গিয়া ভিতরে প্রবেশ করে দেশীয় লোহার তৈরি পাইপগান ও দেশিয় প্রাণনাশক অস্ত্রাদি দ্বারা বাড়ীর সকলকে জিম্মি করে ভয় ভীতি প্রদর্শন পূর্বক নগদ ১ লক্ষ ৮১ হাজার ৫ শত টাকা এবং ৩ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা মূল্যের স্বর্ণালংকার, ৮টি মোবাইল সেট লুন্ঠন করিয়া নিয়া যায়। এ ঘটনায় ডাক্তার সিদ্দিকুর রহমানের নাতী মোঃ নাছির উদ্দিন আহমদ পাবেল বাদী হয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানায় মামলা দায়ের করে। ৩৯৫/ ৩৯৭/ ৪১২ পেনাল কোড মোতাবেক মামলা দায়ের করা হয় (মামলা নং-১৪, তারিখ ২১-০২-২০২০)। অপরদিকে ডাকাতির ঘটনার পরপর ২৪ ঘন্টার মধ্যে অভিযান পরিচালনা করে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২০ ফেব্রæয়ারী বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সোয়া ১০টায় নিজপাট ইউপির রুপচেং গ্রামের ডাকাতির ঘটনার ধৃত আসামী আব্দুল হাকিম কিবরিয়ার বসতঘর অভিযান পরিচালনা করে ডাকাত সদস্য ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার ব্রাহ্মণবাড়ীয়া সদর থানার চাঁনপুর (পাগাচং) গ্রামের মোহাম্মদ আলী প্রকাশ জজ মিয়া প্রকাশ আইনুল হকের ছেলে আব্দুল হাকিম কিবরিয়া (৩২), সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর থানার স্বজনশ্রী গ্রামের মৃত আব্দুল কাইয়ুমের ছেলে ফজলু মিয়া (৩০), জৈন্তাপুর উপজেলার রুপচেং গ্রামের মৃত সামছুল হকের ছেলে মোঃ রাসেল (১৯), একই গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে আমিনুল ইসলাম (১৯), একই গ্রামের রুস্তম আলীর ছেলে মোঃ মোশারফ (১৯) আটক করা হয়। আটককৃতদের নিকট হতে ডাকাতির ঘটনায় লুন্ঠিত টাকার ২০ হাজার এবং দেশীয় লোহার তৈরী ২রাউন্ড গুলি সহ ২টি ওয়ান শুটার পাইপগান উদ্ধার করা হয়। অপরদিকে পুলিশ অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় পৃথক আরেকটি মামলা রেকর্ড করে (যাহার নং-১৫, তারিখ ২১-০২-২০২০)। এছাড়া ধৃত ডাকাত আব্দুল হাকিম কিবরিয়া ও ডাকাত ফজলু মিয়ার বিরুদ্ধে সিলেটের বিভিন্ন থানায় একাদিক মামলা রয়েছে। জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ জানান, ডাকাতির ঘটনার সংবাদ পাওয়ার পর পর উপজেলার নজরদারী বৃদ্ধি করা হয় এবং অভিযান পরিচালনা শুরু করি। এক পর্যয়ে টিম জৈন্তাপুর রূপচেং গ্রামের ডাকাতদল অবস্থান নিশ্চিত হয় এবং অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে আটক করি। গতকাল আটককৃতদের আদলাতে প্রেরন করা হয়েছে।

 

 

 


Share It
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here