ট্রাফিক আইন ভেঙে মোটরসাইকেল শোডাউনে পুলিশের নিরবতায় যাত্রী অধিকার’র উদ্বেগ

ট্রাফিক আইন ভেঙে মোটরসাইকেল শোডাউনে পুলিশের নিরবতায় যাত্রী অধিকার’র উদ্বেগ
ট্রাফিক আইন ভেঙে মোটরসাইকেল শোডাউনে পুলিশের নিরবতায় যাত্রী অধিকার’র উদ্বেগ
Share It
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জেমস আব্দুর রহিম রানা, স্টাফ রিপোর্টার, যশোর : দেশের ট্রাফিক আইনে হেলমেটবিহীন মোটারসাইকেল চালানো অবৈধ হলেও সম্প্রতি হেলমেটবিহীন মোটরসাইকেল শোডাউনের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পরও পুলিশের নিরবতা আইন অমান্যে উৎসাহ দিচ্ছে বলে মন্তব্য করে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে যাত্রী অধিকার আন্দোলন।
বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সাম্প্রতিক সময়ে সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধ ও ট্রাফিক আইন বাস্তবায়নে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেন সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে জনসচেতনতায় কাজ করা এ সংগঠন যাত্রী অধিকার আন্দোলনের আহ্বায়ক কেফায়েত শাকিল ও যুগ্ম আহ্বায়ক অন্তু মুজাহিদ।
বিবৃতিতে তারা বলেন, সম্প্রতি যশোরের এক নারীর নেতৃত্বে মোটরসাইকেল শোডাউনের একটি ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। যা উঠে এসেছে জাতীয় গণমাধ্যমেও। গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, ফারজানা ইসলাম নামের যশোরের ওই নারী গত ১৩ আগস্ট প্রথাভেঙে মোটরসাইকেল শোডাউন করে নিজের গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে যোগ দেন।
যাত্রী অধিকার আন্দোলনের নেতারা বলেন, আমরা নারীর স্বাধীনতা ও অগ্রযাত্রায় বিশ্বাসী। আমরা চাই সমাজের নারী পুরুষ উভয়ে সমান গতিতে এগিয়ে যাক। এবং এ ঘটনাকে নারীর অগ্রযাত্রার মাইলফলক বলেও আমরা মনে করি। কিন্তু ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে শোডাউনে অংশ নেয়া কারো মাথায় হেলমেট না থাকার বিষয়টি আমাদের আতঙ্কিত করেছে। আমরা মনে করছি, ছড়িয়ে পড়া এ ভিডিও এবং স্থিরচিত্র যারা দেখছেন তারা ট্রাফিক আইন অমান্যে উৎসাহিত হচ্ছেন। এ ছবিতে দেশে যে ট্রাফিক আইনের বাস্তবায়ন নেই সে চিত্র ফুটে উঠেছে বলেও আমরা মনে করছি।
তারা আরো বলেন, শুধু এ গায়ে হলুদের ঘটনা নয়, যাত্রী অধিকার আন্দোলন এর আগেও একাধিকবার রাজনৈতিক সভা সমাবেশ ও নির্বাচনী প্রচারণায় এমন আইন লঙ্ঘন করে মোটরসাইকেল শোডাউনের ঘটনায় প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। কিন্তু এসব ঘটনায় ট্রাফিক আইন বাস্তবায়নকারী সংস্থা পুলিশের কোনো তৎপরতা দেখা যায়নি। আমরা মনে করছি, পুলিশের এমন নিরবতা ট্রাফিক আইনকে চরমভাবে বিতর্কিত করছে। প্রতিদিন সড়কে প্রাণ ঝরার জন্য আইনের এমন বাস্তবায়নহীনতাই বিশেষভাবে দায়ী বলে যাত্রী অধিকার আন্দোলন মনে করে।
গণমাধ্যমে ট্রাফিক আইন লঙ্ঘনের বিষয়টি উঠে না আসার সমালোচনা করে তারা বলেন, গণমাধ্যম জাতির চোখ। গণমাধ্যমে এমন ঘটনার ক্ষতিকর দিক উঠে এলে মানুষ সচেতন হতো, যা সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সহায়ক হতো। কিন্তু আইন লঙ্ঘন করা শোডাউন ইতিবাচকভাবে প্রকাশ হতে দেখে আমরা হতাশ হয়েছি।
হেলমেটবিহীন মোটরসাইকেল শোডাউনের ঘটনায় দোষিদের দ্রুত বিচারের আওতায় এনে প্রশাসন দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে এবং গণমাধ্যম বিষয়টি নিয়ে জনসচেতনামূলক প্রচারণা চালাবে বলেও বিবৃতিতে আশা প্রকাশ করেন সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে জনসচেতনতায় কাজ করা সংগঠন যাত্রী অধিকার আন্দোলনের নেতারা।
  • সাংবাদিক নিয়োগ : দৈনিক মুক্ত আলো

  • Application Form - আবেদন ফরমটি যথাযথভাবে পূরণ করে নিচের সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন। আবেদন করার আগে নিচে দেওয়া তথ্য গুলি মনোযোগ সহকারে পড়ে নিন।০১৮২৯৪২৪৭৭১ বিকাশ পার্সোনাল, এই নাম্বারে তিনশত টাকা (আবেদন ফি অফেরত যোগ্য) সেন্ড মানি করে নিচে ট্রানজেকশন আইডি উল্লেখ করুন। (অন্যথায় আপনার আবেদন গৃহীত হবে না,তাই আবেদন করার আগে অবশ্যই সেন্ড মানি করে নিবেন)
  • নির্দেশনার টি ভালভাবে পড়ুন

    সাংবাদিক নিয়োগ : দৈনিক মুক্ত আলো জেলা-উপজেলা ও কলেজ/বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে সাংবাদিক/প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে।সারাদেশ থেকে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার সন্তান / নাতী-নাতনীদের ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রকৃত নাগরিকদের আবেদন করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হল – আগ্রহীরা আগামী (৩০/০৯/২০২০ইং) এর মধ্যে আবেদন জমা দিন জমা দিনঃ ০১৮২৯৪২৪৭৭১ বিকাশ পার্সোনাল, এই নাম্বারে তিনশত টাকা (আবেদন ফি অফেরত যোগ্য) সেন্ড মানি করে নিচে ট্রানজেকশন আইডি উল্লেখ করেন। (অন্যথায় আপনার আবেদন গৃহীত হবে না,তাই আবেদন করার আগে অবশ্যই সেন্ড মানি করে নিবেন) সবার আগে দেশ ও বিদেশের সব খবরের পিছনের খবর জানতে ও জানাতে দেশের প্রতিটি জেলায় সংবাদ প্রতিনিধি,থানা প্রতিনিধি, বিশেষ প্রতিনিধি,বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি,ব্যুরো চিফ,ও গুরুত্বপূর্ণ বিটে স্টাফ রিপোর্টার,এবং স্কুল,কলেজ,বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পুরুষ/মহিলা সেচ্ছাসেবী শিক্ষানবিশ সাংবাদিক নিয়োগ করা হবে । প্রর্থীর যোগ্যতা: # শিক্ষাগত যোগ্যতা কমপক্ষে এইচ,এস,সি.অথবা সমমান হতে হবে। # প্রার্থীর নিজেস্ব ল্যাপটপ/ কম্পিউটার থাকলে ( অগ্রাধিকার দেওয়া হবে) # এম,এস,ওয়ার্ডে বাংলায় টাইপিং জানা থাকলে( অগ্রাধিকার দেওয়া হবে) # ক্যামেরা থাকালে( অগ্রাধিকার দেওয়া হবে) # কোন কপি রাইট সংবাদ প্রেরন করা যাবে না। # প্রেরিত সংবাদের সহিত সংবাদ সর্ম্পকিত ছবি/ভিডিও পাঠানোর চেষ্টা করতে হবে।#অভিজ্ঞ প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে। #প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও নাতী-নাতনীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র: পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি আপলোড করুন। জাতীয় পরিচয় পত্রের ছবি আপলোড করুন। শিক্ষার্থীদের জন্য কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইডি কার্ডের ছবি আপলোড করুন। সর্বশেষ শিক্ষাগত যোগ্যতার সার্টিফিকেটের ছবি আপলোড করুন। । অভিজ্ঞতার ক্ষেত্রে: অভিজ্ঞতা সনদের ছবি আপলোড করুন। মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যের ক্ষেত্রে: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সকল কাগজপত্র ছবি আপলোড করুন। নির্বাচিত সংবাদ কর্মীদেরকে যোগ্যতা অনুযায়ী বিশেষ প্রক্রিয়ায় সম্মানী প্রদান করবে । যোগাযোগ: Phone: 01829424771 E-mail: doinikmuktoalo.editor@gmail.com Facebook: https://www.facebook.com/doinikmuktoalo.bd
  • আবেদন ফরম - apply now

  •  

Share It
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here