পুকুর চুরির অভিযোগ ওসি প্রদীপের বিরুদ্ধে

Share It
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    4
    Shares

শুধু প্রবাদ নয়, বাস্তবেই পুকুর চুরির অভিযোগ আছে আলোচিত টেকনাফের সাবেক ওসি প্রদীপের বিরুদ্ধে। চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে নিজ গ্রামে প্রভাব খাটিয়ে দেড় কোটি টাকার পুকুর দখল করেছেন। প্রভাবশালী হওয়ায় অনিয়মের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে চায় না কেউই। তার স্ত্রীর নামেও রয়েছে বেশকটি পুকুর।

সবুজে ঘেরা বিশাল পুকুর। আছে সান বাঁধানো আকর্ষণীয় ঘাটও। টেকনাফের সাবেক ওসি প্রদীপের গ্রামের বাড়ি বোয়ালখালীর কুনজরি গ্রামে দুই একরের পুকুরটির বর্তমান বাজার মূল্য দেড় কোটির কাছাকাছি। অভিযোগ আছে পুকুরটির সামান্য অংশ প্রদীপের পরিবারের থাকলেও জোর করে পুরো পুকুরটাই দখল করে নিয়েছেন।

স্থানীয় একজন বলেন, ‘একজনের কাছ থেকে কিছু অংশ কিনেছে। বাকি অংশীদারদের থেকে কিনেনি। ওরা প্রশাসনের লোক ভয়ভীতি দেখিয়ে দখল করে নিয়েছে।’

আরেকজন বলেন, ‘আমরা কাগজপত্র বের করেছি। সেটিতে অনেক ওয়ারিশ বের হবে। কিন্তু আমরা শুনছি বাংলাদেশ সরকার নাকি লিস দিয়েছে সেখান থেকে উনি নিয়েছে।’

প্রদীপের তিন ভাই প্রশাসনে চাকরি করেন। তাই স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী। তাদের অপকর্মের বিরুদ্ধে ভয়ে মুখ খুলতে চায় না এলাকাবাসী।

এলাকাবাসীর একজন বলেন, ‘প্রশাসনে চাকরি করে বিধায় ভয় পেয়ে কেউ কিছু করে না। এরা নিজেরাই চারদিক দখল করে রাখছে।’

বোয়ালখালী সারোয়াতলীর চেয়ারম্যান বেলান হোসেন বলেন, ‘আমি জানি ওসি প্রদীপের বউয়ের নামে মাছ চাষ হতো এমন কয়েকটা পুকুর আছে।’

তবে বড় ভাই রনজিত দাশের দাবি, পুকুরটি লিজ নেয়া হয়েছে।

প্রদীপের বড় ভাই রনজিত দাশ বলেন, ‘পুকুরটি আমরা লিজ নিয়েছি আমার ভাই দিলীপের নামে।’

সব অনিয়ম ও অপকর্মের তদন্ত করে দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানান চট্টগ্রাম সনাক সভাপতি আখতার কবির চৌধুরী।

গ্রামে কখনো না গেলেও প্রদীপের নান্দনিক একটি বাড়ি আছে।


Share It
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    4
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here