ঝালকাঠিতে বন্দিদের জন্য ব্যপক প্রস্তুতি সুরক্ষার চাদরে ঘিরে দেয়া হয়েছে কারাগার

Share It
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

আরিফুর রহমান আরিফ  ॥ ঝালকাঠি জেলা কারাগারের বন্দিদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে ব্যপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। করোনা ভাইরাস এর সংক্রমণ ঠেকাতে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা হিসেবে কারা কর্তৃপক্ষ ইতিমধ্যে যে সকল ব্যবস্থা গ্রহন করেছে তার মধ্যে বন্দিদের সাথে স্বজনদের সাক্ষাত সময় কমিয়ে আনা হয়েছে। সাক্ষাতের নিধারিত স্থানটির ১ মিটার দূরত্বে নেট লাগিয়ে দেয়া হয়েছে। কারা কর্মকর্তা ও কর্মচারীসহ বন্দিদের  কারা অভ্যন্তরে প্রবেশের সময় জুতা জীবাণুমুক্ত করার জন্য মেইন গেইটে একটি বিশেষ ট্রে রাখা হয়েছে যার ভিতর পটাশিয়াম পারম্যাঙ্গানেট দ্রবণ (লিকুইড) ঢেলে রাখা হয়েছে। তাতে জুতা ভিজিয়ে জীবানু মুক্ত করে সকলকে কারা অভ্যন্তরে প্রবেশ করানো হচ্ছে। প্রতিদিন দু’বার সকল বন্দিদের শরীরের তাপমাত্রা মাপা হচ্ছে। বন্দিদের বার বার হাত ধোয়ার জন্য একাধীক পয়েন্টে সাবান ও পানির ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।
ভিতরে ২টি কোয়ারেন্টাইন ওয়ার্ড চালু করা হয়েছে বাহির থেকে নতুন আসামী প্রবেশের সাথে সাথে তাদেরকে কোয়ারেন্টাইন ওয়ার্ডে পাঠানো হয়। সেখানে ১৪ দিন থাকার পর সাধারণ ওয়ার্ডে স্থানান্তর করা হয়। এই ১৪ দিনর আগে যদি যাবিন হয় তাহলে কারো সংস্পর্শে না এনে বাহিরে পাঠিয়ে দেয়া হয়। করোনা ভাইরাসটি কিভাবে ছড়ায় এবং তা প্রতিরোধের ব্যবস্থা ও করণীয় সম্পর্কিত বিশেষ নির্দেশনা সম্বলিত পোস্টার কারা অভ্যন্তরে এবং বাহিরে টাঙিয়ে দেয়া হয়েছে। টেইলারিং প্রশিক্ষন প্রাপ্ত কারা বন্দিদের দিয়ে ভালো মানের মাক্স তৈরি করে সকল বন্ধিদের মাঝে সরবরাহ করা হয়েছে। তবে বিশেষ ভাবে তৈরি করা এই মাক্স নিতে বন্দিদেরকে খরচ বাবদ ২৫ টাকা মুল্য পরিশোধ করতে হয়েছে। ঝালকাঠি জেল সুপার শফিউল আলম এ প্রতিনিধিকে জানান, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক নির্দেশনা এবং সরকারের আদেশ মোতাবেক বন্দিদের সুরক্ষায় সর্ব রকম ব্যবস্থা ও নজরদারী আমরা করছি। কারা কর্মকর্তা আরো বলেন, দেখার ঘরে গেদারিং কমানোর লক্ষ্যে বন্দিদের সাথে স্বজনদের সাক্ষাতের সময় কমিয়ে প্রতি ১৫ দিনে ১বার করা হয়েছে।

Share It
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here