বাংলাদেশিদের নিয়ে ইতালির প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের খবরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতি

Share It
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

বাংলাদেশিদের ‘ভাইরাস বোম’ বলেননি ইতালির প্রধানমন্ত্রী জুসেপ্পে কন্তে। শনিবার (১১ জুলাই) বাংলাদেশর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। তার বক্তব্য ভুলভাবে উপস্থাপন করে বাংলাদেশের কয়েকটি পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের কিছু গণমাধ্যম ভুলভাবে ইতালির প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য প্রকাশ করেছে। ইতালির প্রধানমন্ত্রী সম্প্রতি স্প্যানিশ একটি টিভি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তার মাদ্রিদ সফর সম্পর্কে কথা বলেছেন। তখন তিনি সেখানে বলেছেন, বাংলাদেশসহ ১২টি দেশের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধ করেছে ইতালি। কারণ তারা আবারও করোনাভাইরাসের মহামরির মধ্যে পড়তে চায় না।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘আমরা জোর দিয়ে বলতে চাই, ইতালির প্রধানমন্ত্রী কখনও বাংলাদেশিদের সম্পর্কে এ জাতীয় কোন কথা বলেননি।’

ইতালির প্রধানমন্ত্রী স্প্যানিশ টিভিকে দেওয়া ওই সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘সম্প্রতি বাংলাদেশ থেকে যাওয়া ফ্লাইটে ২০ ভাগের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। তাই তাদের ফেরত পাঠানো হয়েছে।’ কিন্তু বাংলাদেশের কয়েকটি গণমাধ্যম তার এই বক্তব্যকে ভুলভাবে প্রকাশ করে।

উল্লেখ্য, ইতালি বিশ্বের ১২টি দেশের সঙ্গে ফ্লাইট বন্ধ করেছে। এই সিদ্ধান্ত ১৪ জুলাই পর্যালোচনা করা হবে। তার পর নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বৃদ্ধি অথবা চালুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে বলে জানায় দেশটির এভিয়েশান বিভাগ।

পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘ইতালিতে ১ লাখ ৫০ হাজারের বেশি বাংলাদেশি বসবাস করছে। ইতালি এবং বাংলাদেশ মনে করে, প্রবাসীরা দুই দেশের উন্নয়নে এবং জাতীয় আয়ে অবদান রাখছে। এটি মনে রাখা উচিৎ, শুধু ইতালি নয়, বিশ্বের অনেক দেশ ভ্রমণকারীদের ওপর নিষেধাজ্ঞা বা কড়াকড়ি আরোপ করেছে। ইতালির এই সিদ্ধান্ত সে রকমই।”

বাংলাদেশ এবং ইতালির সম্পর্কে নেতিবাচক প্রভাব তৈরি করে এমন সংবাদ প্রকাশ থেকে বিরত থাকতে দেশেল গণমাধ্যমের প্রতি আহ্বান জানানো হয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে।


Share It
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here