প্রবীণ অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় প্রায় একমাস ধরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। শারীরিক অবস্থা কখনও উন্নতি আবার কখনও অবনতির দিকে যাচ্ছে। ভেন্টিলেশনে রেখে চিকিৎসকরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন গুণী এ অভিনেতাকে সুস্থ করে তোলার।

৮৫ বছর বয়সী এ অভিনেতার সবশেষ অবস্থা জানতে সময় নিউজের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হয় তার মেয়ে নাট্যকর্মী পৌলমী বসুর সঙ্গে। শনিবার (৭ নভেম্বর) বিকেলে মুঠোফোনে তিনি বলেন, ‘বাবার এখনও জ্ঞান ফেরেনি। কনসাশনেস এখনও আসেনি। বাকিসব মোটামুটি স্ট্যাবল আছে। কিডনির জন্য মাঝে মধ্যে ডায়ালাইসিস দেয়া হচ্ছে।’

তবে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে খবর, সৌমিত্রের অবস্থা উন্নতির দিকে। ফলে তার অ্যান্টিবায়োটিক ও অ্যান্টিফাঙ্গাল ওষুধ প্রয়োগ বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডাক্তার। আর হাসপাতালের ডাক্তারের বরাত দিয়ে অভিনেতা কন্যা আরও বলেন, ‘ডাক্তারই বলছেন, এখনও জ্ঞান না এলে কিছু বলা যাচ্ছে না। অবস্থা মোটামুটি স্থিতিশীল কিন্তু উনার কনসাশনেস ফিরে আসা খুব জরুরি।’

করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৬ অক্টোবর কলকাতার একটি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় পুরোপুরি অচেতন হয়ে পড়েছিলেন তিনি। মিউজিক থেরাপি দিয়ে তার জ্ঞান ফেরানো চেষ্টাও হয়েছে। কিছুদিন আগে, মেয়ের ডাকে চোখ খোলার চেষ্টা করেছিলেন এ অভিনেতা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here