ভারত-পাকিস্তান সিরিজ: ক্রিকেটের চেয়ে রাজনীতি বড়!

Share It
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে জমজমাট লড়াইটা বোধ হয় এই দু’দলের। প্রতিবেশী দুই দেশের চিরবৈরিতা, সীমান্তের উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে খেলার মাঠেও। সমর্থক মনে যেমন বৈরিতা থাকে তেমনি কথার লড়াই কিংবা শারীরিক ভাষায় নিজেদের দ্বন্দ্বের কথা জানান দেন ক্রিকেটাররাও। এর ফলে পরিস্থিতি এমন দাঁড়ায়, অন্য সব ম্যাচে হারা যাবে, কিন্তু এই ম্যাচে কোনোভাবেই হার নয়। 

অবস্থা যখন এমন থাকে, ম্যাচটার আকর্ষণও বেড়ে যায় কয়েকগুণ।

তবে দুই দেশের রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব এতটাই প্রভাবশালী হয়ে উঠেছে যে, দীর্ঘদিন ক্রিকেট মাঠের বিনোদন থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন সমর্থকরা। কারণ পাকিস্তান টেস্ট সিরিজ খেলতে ভারতীয়রা সবশেষ সফর করেছিল ১৪ বছর আগে। আর ভারতে পাকিস্তানিরা সবশেষ সিরিজ খেলেছে ৮ বছর আগে। এরপর দু’দলের দ্বিপাক্ষিক সিরিজও আর হয়নি। এতগুলো বছরে কেবল আইসিসি ইভেন্টগুলোতে হাতেগোণা যে কয়েকবার দেখা হয়েছে, তাই-ই সই!

বহুল কাঙ্ক্ষিত ভারত-পাকিস্তান দ্বিপাক্ষিক সিরিজ বোধহয় শিগগিরই আর হচ্ছেও না। অন্তত পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান এহসান মানির কথায় এমনটাই আভাস মিলছে। তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, ভারতের সঙ্গে রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের ইতি না ঘটা পর্যন্ত কোনো ধরণের সিরিজ খেলতে আগ্রহী নয় পাকিস্তান।

বার্তা সংস্থা আইওএনএসকে দেয়া সাক্ষাৎকারে পিসিবি চেয়ারম্যান বলেন, বছরের পর বছর ধরে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে আমরা দ্বিপাক্ষিক সিরিজ নিয়ে আলোচনা করেছি। যেকোনো মূল্যে তাদের সঙ্গে আমরা খেলতে চেয়েছি। তবে এখন আর সেই মনোভাব নেই আমাদের। এই মুহূর্তে বিসিসিআইয়ের সঙ্গে আমরা কোনোধরণের ম্যাচ খেলতে আগ্রহী নই। আগে দুই দেশের রাজনৈতিক সমস্যার সমাধান হোক, তারপর আমরা ক্রিকেট নিয়ে কথা বলবো।

কেবল দ্বিপাক্ষিক সিরিজই নয়, বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম জনপ্রিয় আসর ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ-আইপিএলেও অংশ নেয় না পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। ২০০৮ সালে আইপিএলের ১ম আসরে খেলেছিলেন ১১ জন পাকিস্তানি ক্রিকেটার। সেবারই শুরু, সেবারই শেষ। এরপর দুই দেশের সম্পর্কে অবনতি হওয়ায়, এই আসরে ক্রিকেটার পাঠাতে অস্বীকৃতি জানায় পিসিবি। ভারতীয় বোর্ডও আর পাকিস্তানি ক্রিকেটার খেলানোর মতো আগ্রহ দেখায়নি। যদিও বছরের পর বছর ধরে পাকিস্তানি বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার আইপিএলে খেলার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন। তবে নিজেদের সেই অবস্থান থেকে এখনো সরে আসার কোনো ইচ্ছে নেই পাকিস্তান বোর্ডের।

এহসান মানি বলেন, আমাদের কোনো ইচ্ছে নেই। নিজেদের সিদ্ধান্ত থেকে আমরা সরে আসছি না। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড চাইলে হয়তো কিছু করা যেত। কিন্তু তাদেরও এখন কিছু করার নেই। কারণ এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাতে পারবে কেবল সরকার।

ভারত-পাকিস্তান দ্বন্দ্ব সমাধানে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির এগিয়ে আসা উচিত বলে মনে করেন আইসিসির সাবেক এই সভাপতি।

তিনি বলেন, দ্বিপাক্ষিক সিরিজ কিংবা কোনোধরণের ম্যাচ নিয়ে আমি ভারতীয় বোর্ডের সঙ্গে কথা বলিনি। তাদের যদি কিছু বলার থাকে এটা তাদের দায়িত্ব আমাদেরকে জানানো। আমরা আগ বাড়িয়ে তাদের সঙ্গে কথা বলতে যাচ্ছি না। আইসিসি’র সংবিধান বলে, ক্রিকেট বোর্ডে কোনো রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ থাকতে পারবে না। এই বিষয়টা তো রাজনৈতিক। সুতরাং আমি মনে করি, আইসিসির উচিত বিসিসিআইয়ের সঙ্গে এই বিষয়ে কথা বলা।

বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলির সঙ্গে সাম্প্রতিক সময়ে কোনোধরণের দেখাও হয়নি বলে জানিয়েছেন এহসান মানি। তবে এর আগে বেশ কয়েকবার ফোনালাপ হয়েছে দু’জনের।

  • সাংবাদিক নিয়োগ : দৈনিক মুক্ত আলো

  • Application Form - আবেদন ফরমটি যথাযথভাবে পূরণ করে নিচের সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন। আবেদন করার আগে নিচে দেওয়া তথ্য গুলি মনোযোগ সহকারে পড়ে নিন।০১৮২৯৪২৪৭৭১ বিকাশ পার্সোনাল, এই নাম্বারে তিনশত টাকা (আবেদন ফি অফেরত যোগ্য) সেন্ড মানি করে নিচে ট্রানজেকশন আইডি উল্লেখ করুন। (অন্যথায় আপনার আবেদন গৃহীত হবে না,তাই আবেদন করার আগে অবশ্যই সেন্ড মানি করে নিবেন)
  • নির্দেশনার টি ভালভাবে পড়ুন

    সাংবাদিক নিয়োগ : দৈনিক মুক্ত আলো জেলা-উপজেলা ও কলেজ/বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে সাংবাদিক/প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে।সারাদেশ থেকে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার সন্তান / নাতী-নাতনীদের ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রকৃত নাগরিকদের আবেদন করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হল – আগ্রহীরা আগামী (৩০/০৯/২০২০ইং) এর মধ্যে আবেদন জমা দিন জমা দিনঃ ০১৮২৯৪২৪৭৭১ বিকাশ পার্সোনাল, এই নাম্বারে তিনশত টাকা (আবেদন ফি অফেরত যোগ্য) সেন্ড মানি করে নিচে ট্রানজেকশন আইডি উল্লেখ করেন। (অন্যথায় আপনার আবেদন গৃহীত হবে না,তাই আবেদন করার আগে অবশ্যই সেন্ড মানি করে নিবেন) সবার আগে দেশ ও বিদেশের সব খবরের পিছনের খবর জানতে ও জানাতে দেশের প্রতিটি জেলায় সংবাদ প্রতিনিধি,থানা প্রতিনিধি, বিশেষ প্রতিনিধি,বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি,ব্যুরো চিফ,ও গুরুত্বপূর্ণ বিটে স্টাফ রিপোর্টার,এবং স্কুল,কলেজ,বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পুরুষ/মহিলা সেচ্ছাসেবী শিক্ষানবিশ সাংবাদিক নিয়োগ করা হবে । প্রর্থীর যোগ্যতা: # শিক্ষাগত যোগ্যতা কমপক্ষে এইচ,এস,সি.অথবা সমমান হতে হবে। # প্রার্থীর নিজেস্ব ল্যাপটপ/ কম্পিউটার থাকলে ( অগ্রাধিকার দেওয়া হবে) # এম,এস,ওয়ার্ডে বাংলায় টাইপিং জানা থাকলে( অগ্রাধিকার দেওয়া হবে) # ক্যামেরা থাকালে( অগ্রাধিকার দেওয়া হবে) # কোন কপি রাইট সংবাদ প্রেরন করা যাবে না। # প্রেরিত সংবাদের সহিত সংবাদ সর্ম্পকিত ছবি/ভিডিও পাঠানোর চেষ্টা করতে হবে।#অভিজ্ঞ প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে। #প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও নাতী-নাতনীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র: পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি আপলোড করুন। জাতীয় পরিচয় পত্রের ছবি আপলোড করুন। শিক্ষার্থীদের জন্য কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইডি কার্ডের ছবি আপলোড করুন। সর্বশেষ শিক্ষাগত যোগ্যতার সার্টিফিকেটের ছবি আপলোড করুন। । অভিজ্ঞতার ক্ষেত্রে: অভিজ্ঞতা সনদের ছবি আপলোড করুন। মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যের ক্ষেত্রে: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সকল কাগজপত্র ছবি আপলোড করুন। নির্বাচিত সংবাদ কর্মীদেরকে যোগ্যতা অনুযায়ী বিশেষ প্রক্রিয়ায় সম্মানী প্রদান করবে । যোগাযোগ: Phone: 01829424771 E-mail: doinikmuktoalo.editor@gmail.com Facebook: https://www.facebook.com/doinikmuktoalo.bd
  • আবেদন ফরম - apply now

  •  

Share It
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here