ভাড়া বাড়ি-শপিং মলেই চলছে প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি

Share It
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

গত দশ বছরে অন্তত পাঁচ বার সময় দিয়েও স্থায়ী ক্যাম্পাসে নেয়া যায়নি দেশের অধিকাংশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম। বরং আইন অমান্য করে ভাড়া বাড়ি কিংবা ফ্ল্যাটে বহাল তবিয়তে চলছে প্রতিষ্ঠানগুলো। আবার অনেকে স্থায়ী ক্যাম্পাস নির্মাণ করলেও শিক্ষার্থী হারানোর ভয়ে বন্ধ করছে না ‘সিটি ক্যাম্পাস’। অথচ এসব অনিয়মের দায়ে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার আইন থাকলেও অনেকটাই উদাসীন ইউজিসি।

ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অলটারনেটিভ। ২০০২ সালে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রতিষ্ঠার পর পেরিয়েছে আঠারোটি বছর। তবু আজো স্থায়ী ক্যাম্পাসের মুখ দেখিনি এর শিক্ষার্থীরা। বরং আইনের তোয়াক্কা না করেই শিক্ষা কার্যক্রম চলছে ভাড়া বাসায়।

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি এক্ষেত্রে এগিয়েছে অনেক দূর। দুটি বিশ্ববিদ্যালয় একই বছরে প্রতিষ্ঠা পেলেও এরই মধ্যে আশুলিয়ায় প্রায় দেড়শ একর জমিতে স্থায়ী ক্যাম্পাস নির্মাণ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়টি। তবে অবকাঠামোগত সক্ষমতা সত্ত্বেও আজও সিটি ক্যাম্পাসের লোভ ছাড়তে পারেনি প্রতিষ্ঠানটি। আইন অমান্যের এ প্রতিযোগিতায় প্রতিটি প্রতিষ্ঠানেরই রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন ব্যাখ্যা, ভিন্ন ভিন্ন অজুহাত।

এ প্রসঙ্গে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির পরিচালক সৈয়দ মিজানুর রহমান রাজ বলেন, যারা এখানে ভর্তি হয়েছে, তারা তো এই ক্যাম্পাস দেখে এখানে ভর্তি হয়েছে। তাদের তো জোর করা যাবে না।

এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের অভিযোগের তীর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দিকেই।

তারা বলেন, ক্যাম্পাস থাকবে বড়োসড়ো। এগুলোকে দেখলে শপিং মলের মত মনে হয়। এভাবে ভালো লাগে না।

দেশে ১০৬টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতি থাকলেও শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে ৯৬টি। যার মধ্যে মাত্র ২৪টির শিক্ষা কার্যক্রম চলছে স্থায়ী ক্যাম্পাসে। বাকিদের অনেকেই শুরুই করেনি স্থায়ী ক্যাম্পাস প্রতিষ্ঠার কাজ। আইন লঙ্ঘনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে শিগগিরই শাস্তির আওতায় আনার কথা বলছে ইউজিসি।

ইউজিসির পরিচালক ড. মো. ফখরুল ইসলাম বলেন, অনেক ইউনিভার্সিটি সিটি ও পার্মানেন্ট সব ক্যাম্পাসেই ভর্তি নিচ্ছে।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন ২০১০ অনুযায়ী অনুমোদনের ১২ বছরের মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে যাওয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। স্থায়ী ক্যাম্পাস নির্মাণে মেট্রোপলিটন এলাকায় প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়কে ন্যূনতম এক একর এবং অন্যান্য এলাকায় কমপক্ষে দুই একর অখণ্ড জমি থাকার বিধান রয়েছে।

  • সাংবাদিক নিয়োগ : দৈনিক মুক্ত আলো

  • Application Form - আবেদন ফরমটি যথাযথভাবে পূরণ করে নিচের সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন। আবেদন করার আগে নিচে দেওয়া তথ্য গুলি মনোযোগ সহকারে পড়ে নিন।০১৮২৯৪২৪৭৭১ বিকাশ পার্সোনাল, এই নাম্বারে তিনশত টাকা (আবেদন ফি অফেরত যোগ্য) সেন্ড মানি করে নিচে ট্রানজেকশন আইডি উল্লেখ করুন। (অন্যথায় আপনার আবেদন গৃহীত হবে না,তাই আবেদন করার আগে অবশ্যই সেন্ড মানি করে নিবেন)
  • নির্দেশনার টি ভালভাবে পড়ুন

    সাংবাদিক নিয়োগ : দৈনিক মুক্ত আলো জেলা-উপজেলা ও কলেজ/বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে সাংবাদিক/প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে।সারাদেশ থেকে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার সন্তান / নাতী-নাতনীদের ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রকৃত নাগরিকদের আবেদন করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হল – আগ্রহীরা আগামী (৩০/০৯/২০২০ইং) এর মধ্যে আবেদন জমা দিন জমা দিনঃ ০১৮২৯৪২৪৭৭১ বিকাশ পার্সোনাল, এই নাম্বারে তিনশত টাকা (আবেদন ফি অফেরত যোগ্য) সেন্ড মানি করে নিচে ট্রানজেকশন আইডি উল্লেখ করেন। (অন্যথায় আপনার আবেদন গৃহীত হবে না,তাই আবেদন করার আগে অবশ্যই সেন্ড মানি করে নিবেন) সবার আগে দেশ ও বিদেশের সব খবরের পিছনের খবর জানতে ও জানাতে দেশের প্রতিটি জেলায় সংবাদ প্রতিনিধি,থানা প্রতিনিধি, বিশেষ প্রতিনিধি,বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি,ব্যুরো চিফ,ও গুরুত্বপূর্ণ বিটে স্টাফ রিপোর্টার,এবং স্কুল,কলেজ,বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পুরুষ/মহিলা সেচ্ছাসেবী শিক্ষানবিশ সাংবাদিক নিয়োগ করা হবে । প্রর্থীর যোগ্যতা: # শিক্ষাগত যোগ্যতা কমপক্ষে এইচ,এস,সি.অথবা সমমান হতে হবে। # প্রার্থীর নিজেস্ব ল্যাপটপ/ কম্পিউটার থাকলে ( অগ্রাধিকার দেওয়া হবে) # এম,এস,ওয়ার্ডে বাংলায় টাইপিং জানা থাকলে( অগ্রাধিকার দেওয়া হবে) # ক্যামেরা থাকালে( অগ্রাধিকার দেওয়া হবে) # কোন কপি রাইট সংবাদ প্রেরন করা যাবে না। # প্রেরিত সংবাদের সহিত সংবাদ সর্ম্পকিত ছবি/ভিডিও পাঠানোর চেষ্টা করতে হবে।#অভিজ্ঞ প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে। #প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও নাতী-নাতনীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র: পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি আপলোড করুন। জাতীয় পরিচয় পত্রের ছবি আপলোড করুন। শিক্ষার্থীদের জন্য কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইডি কার্ডের ছবি আপলোড করুন। সর্বশেষ শিক্ষাগত যোগ্যতার সার্টিফিকেটের ছবি আপলোড করুন। । অভিজ্ঞতার ক্ষেত্রে: অভিজ্ঞতা সনদের ছবি আপলোড করুন। মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যের ক্ষেত্রে: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সকল কাগজপত্র ছবি আপলোড করুন। নির্বাচিত সংবাদ কর্মীদেরকে যোগ্যতা অনুযায়ী বিশেষ প্রক্রিয়ায় সম্মানী প্রদান করবে । যোগাযোগ: Phone: 01829424771 E-mail: doinikmuktoalo.editor@gmail.com Facebook: https://www.facebook.com/doinikmuktoalo.bd
  • আবেদন ফরম - apply now

  •  

Share It
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here