মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের মধ্যে নির্বাচনী লড়াই এখন তুঙ্গে। গুরুত্বপূর্ণ রাজ্যসহ সারা দেশের নির্বাচনকর্মীরা ভোট গণনায় ব্যস্ত সময় পার করছেন।

গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটলগ্রাউন্ডের একটি পেনসিলভেনিয়া। রাজ্যের কর্মকর্তারা জানান, পোস্ট অফিসের মাধ্যমে সেখানে বহু মানুষ ভোট দিয়েছেন। নির্বাচনের দিনের আগে সে ভোটগুলো গণনার কাজ শুরু হয়নি। লাখ লাখ ভোট জমে যাওয়ায় ভোট গণনা শেষ করতে দেরি হচ্ছে।

অ্যারিজোনা:

ব্যাটলগ্রাউন্ড অ্যারিজোনার বৃহত্তর কাউন্টি ম্যারিকোপা। কর্মকর্তারা বলেন, ২ লাখ ৪ হাজার ভোট গণনা বাকি। শুক্রবার সকাল থেকে সেগুলো গণনা শুরু হয়েছে। স্থানীয় সময় সকাল ১১ নাগাদ ফলাফল ঘোষণা শুরু হবে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজ্যের সেক্রেটারি ক্যাটি হোবস সিএনএনকে বলেন, বুধবার একদিনে ১ লাখ ৪০ হাজার ভোট গণনা করা হয়। বৃহস্পতিবারও ভোট গণনার সে গতি অব্যাহত ছিল। শুক্রবার সন্ধ্যা নাগাদ অ্যারিজোনায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফলের পরিষ্কার চিত্র পাওয়া যাবে। পিমা কাউন্টির ৪৬ হাজার ভোট গণনা তখনও বাকি বলে জানান হোবস।

জর্জিয়া

আটলান্টায় ক্লেটন কাউন্টির একটি ভোট কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষণার পর ট্রাম্প থেকে একটি এগিয়ে যান বাইডেন। বৃহস্পতিবার দ্রুতগতিতে ভোট গণনার কারণে ট্রাম্পের সঙ্গে বাইডেনের ব্যবধান কমে যায়।

বৃহস্পতিবার রাতে গুইনেট কাউন্টি, নর্থইস্ট আটলান্টা এবং ফোর্সিথ কাউন্টির ভোট গণনা বাকি ছিল। বৃহস্পতিবার রাজ্যের কর্মকর্তা গাব্রিয়েল স্ট্যারলিং জোর দিয়ে বলেন, স্বচ্ছতা নিশ্চিতের জন্য ধৈর্য সহকারে ভোট গুণতে হয়।

‘প্রত্যেকে নিজেদের সেরাটা দিয়ে কাজ করছেন। প্রকৃত ভোটগুলো সঠিকভাবে বাচাই করা হচ্ছে। এ রকম হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের নির্বাচনে আমাদের অনেক বেশি সতর্ক থাকতে হয়। সব ঠিকভাবে নিশ্চিত করতে হয়।’ বলেন তিনি।

নেভাদা:

জনবহুল শহর লাস ভেগাস অবস্থিত নেভাদা রাজ্যের ক্লার্ক কাউন্টিতে। বৃহস্পতিবার রাতে সেখানে অনেক ভোট গণনার বাকি ছিল। ক্লার্ক কাউন্টির রেজিস্ট্রার জোয়ে গ্লোরিয়া বলেন, শুক্রবার সকালের দিকে কর্মকর্তারা ৫১ হাজার ভোটের ফলাফল প্রকাশ করতে পারবেন বলে আশা করি। ক্লার্ক কাউন্টিতে নেভাদার ৭০ শতাংশ সক্রিয় ভোটার রয়েছে।

বৃহস্পতিবার নেভাদার স্টেট সেক্রেটারি জানান, ১ লাখ ৯০ হাজার ১৫০টি ভোট এখনো গণনা করা হয়নি। যার ৯০ শতাংশ ক্লার্ক কাউন্টির। অতিরিক্ত ২ হাজার ৫০০ ভোট শুক্রবারের মধ্যে যাচাইবাছাই করতে হবে।

‘নির্বাচনের দিন থেকে পোস্টালে ভোট পাঠানো শুরু হয়েছে। ১০ নভেম্বর পর্যন্ত পোস্টালে বা মেইলে ভোট গ্রহণ চলবে। নেভাদায় কি পরিমাণ ভোট এখনো গোনা বাকি, তা সুনির্দিষ্টভাবে বলা মুশকিল।’ বলেন তিনি।

নর্থ ক্যারোলিনা

নর্থ ক্যারোলিনায় এগিয়ে আছেন ট্রাম্প। অন্তত ৭৫ হাজার ভোটে পেছনে ফেলেছেন বাইডেনকে। সেখান ৯৫ শতাংশ ভোট গণনা হয়ে গেছে। বাকি ফলাফল আগামী সপ্তাহের আগে প্রকাশের সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ।

নর্থ ক্যারোলিনার ১ লাখ ১৬ হাজার ভোট এখনো ভোট গণনা কেন্দ্রে পৌঁছায়নি। সেগুলো পোস্টালে নাকি সরাসরি দেয়া হয়েছে তাও নিশ্চিত না। ১২ নভেম্বর গণনা কেন্দ্রে এসে পৌঁছানেরা কথা। মোট ভোট থেকে কিছু ভোট বাতিলও হতে পারে। স্থানীয় নির্বাচন বোর্ডের নির্বাহী পরিচালক কারেন ব্রিনসন জানান, ১৩ নভেম্বরের আগে পরিপূর্ণ ফলাফল ঘোষণা সম্ভব নয়।

পেনসিলভেনিয়া

পেনসিলভেনিয়ার সবচেয়ে বড় কাউন্টি ফিলাডেলফিয়া। সেখানকার ৫০ হাজার মেইল ভোট শুক্রবার সকাল পর্যন্ত গণনার বাইরে ছিল। ফিলাডেলফিয়ার সিটি কমিশনার অল স্মমিদ এ তথ্য জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার কাউন্টির কর্মকর্তারা এক বিবৃতিতে জানান, মেইলের মাধ্যমে যেসব ভোট এসেছে সেগুলো তারা যাচাই বাছাই করেছেন। তার মধ্যে ৭৭ শতাংশ ভোট বাইডেনের পক্ষে বলেও জানানো হয়।

ব্যাটলগ্রাউন্ড ৫ রাজ্যের সবশেষ ভোটের ফলাফল:

১. অ্যারিজোনায় বাইডেন পেয়েছেন ৫০ দশমিক ০৭ শতাংশ ভোট। ট্রাম্প আছেন ৪৮ দশমিক ৫৩ শতাংশ ভোট নিয়ে। এগিয়ে আছেন বাইডেন।

২. জর্জিয়ায় বাইডেন পেয়েছেন ৪৯ দশমিক ৩৯ শতাংশ। ট্রাম্প পেয়েছেন ৪৯ দশমিক ৩৭ শতাংশ। ট্রাম্প থেকে এগিয়ে আছেন বাইডেন।

৩. নেভাদায় বাইডেন পেয়েছেন ৪৯ দশমিক ৪৩ শতাংশ। ট্রাম্প আছেন ৪৮ দশমিক ৫ শতাংশ ভোট নিয়ে। এগিয়ে আছেন বাইডেন।

৪. নর্থ ক্যারোলিনায় ট্রাম্প পেয়েছেন ৫০ দশমিক ০৯ শতাংশ। বাইডেন পেয়েছেন ৪৮ দশমিক ৬৯ শতাংশ। এগিয়ে আছেন ট্রাম্প।

৫. পেনসিলভেনিয়ায় বাইডেন পেয়েছেন ৪৯ দশমিক ৪৭ শতাংশ। ট্রাম্প পেয়েছেন ৪৯ দশমিক ৩৯ শতাংশ। এগিয়ে আছেন বাইডেন।

আরেক রাজ্য আলাস্কায় ট্রাম্প পেয়েছেন ৬২ দশমিক ১১ শতাংশ ভোট। বাইডেন পেয়েছেন ৩৩ দশমিক ৫১ শতাংশ ভোট। এগিয়ে আছেন ট্রাম্প।

এ পর্যন্ত বাইডেন এগিয়ে আছেন ২৬৪টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পেয়ে। জয়ের জন্য দরকার ২৭০ ভোট। বাইডেনের দরকার আরো ৬ ভোট।

ট্রাম্প পেয়েছেন ২১৪ ইলেকটোরাল কলেজ ভোট। আরো দরকার ৫৬ ভোট।

৬ রাজ্যের ৬০টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের ফলাফল ঘোষণা এখনো বাকি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here