শ্রমবাজার নিয়ে মালয়েশিয়া-বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত

Share It
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    5
    Shares

শ্রমবাজার পুনরায় চালুর বিষয়ে বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়ার মধ্যে ফলপ্রসূ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) সকালে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ এবং মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী এম সারাভানান ভার্চুয়ালি বৈঠক করেন। দুই মন্ত্রী ছাড়াও সংশ্লিষ্ট সচিবসহ কর্মকর্তারা এতে অংশ নেন। কুয়ালালামপুর থেকে যোগ দেন বাংলাদেশের হাইকমিশনার শহিদুল ইসলাম।

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার পুনরায় বাংলাদেশের জন্য উন্মুক্তকরণ, সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর, কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে অনলাইন সিস্টেম চালু, কর্মী প্রেরণে রিক্রুটিং এজেন্টের সম্পৃক্ততা, পরবর্তী জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ সভা আয়োজন এবং কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে আটকেপড়া বাংলাদেশি কর্মীদের মালয়েশিয়ায় ফেরাসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন তারা।

বাংলাদেশি কর্মীদের জন্য শ্রমবাজার শিগগির উন্মুক্তকরণের বিষয়ে মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী সম্মতি প্রকাশ করেন। কোভিড-১৯ পরিস্থিতি উন্নত হলে কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

সভায় মন্ত্রীরা একমত হন যে, সুষ্ঠু শ্রম অভিবাসনের স্বার্থে বাংলাদেশ হতে সব বৈধ রিক্রুটিং এজেন্টের তালিকা মালয়েশিয়ায় প্রেরণ করা হবে। মালয়েশিয়া ওই তালিকা থেকে উপযুক্ত সংখ্যক রিক্রুটিং এজেন্ট নির্বাচন করবে।

রিক্রুটমেন্ট প্রক্রিয়ায় ডাটাবেইজ থেকে কর্মী সংগ্রহ, ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে ন্যায্য সার্ভিস মূল্য প্রদানসহ পুরো প্রক্রিয়া মনিটরিং করা হবে একটি সমন্বিত অনলাইন সিস্টেমের মাধ্যমে। কর্মী রিক্রুটমেন্ট প্রক্রিয়ায় মনিটরিং কার্যক্রম জোরদার করার বিষয়েও একমত হন তারা ।

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মীদের রিক্রুটমেন্ট ও সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম বিষয়ে শিগগরি উভয় দেশের মধ্যে জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ মিটিং অনুষ্ঠিত হবে বলেও বৈঠকে উভয়পক্ষ সম্মত হয়। কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে আটকেপড়া বাংলাদেশি কর্মীদের মালয়েশিয়া ফেরত যাওয়ার লক্ষ্যে কার্যক্রম গ্রহণের বিষয়টি সভায় আলোচনা করা হয়। মালয়েশিয়া এ বিষয়ে কার্যক্রম গ্রহণে নীতিগতভাবে সম্মত হয়েছে।

এ সংক্রান্ত গৃহীত পদক্ষেপ সম্পর্কে পরবর্তীতে জানানো হবে বলে তাদের পক্ষ হতে আশ্বস্ত করা হয়। প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী মালয়েশিয়ায় অনিয়মিতভাবে অবস্থানরত বাংলাদেশি কর্মীদের নিয়মিতকরণের বিষয়ে দেশটির মানবসম্পদমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহযোগিতা কামনা করেন। বৈঠকে ইতিবাচক ও ফলপ্রসূ আলোচনা অনুষ্ঠিত হওয়ায় উভয়পক্ষ সন্তোষ প্রকাশ করেন।

বৈঠকে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন, মালয়েশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনার মো. শহিদুল ইসলাম, বিএমইটির মহাপরিচালক মো. শামসুল আলম, অতিরিক্ত সচিব বশির আহমেদ এবং শ্রম কাউন্সিলর মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

মালয়েশিয়ার পক্ষে দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সেক্রেটারি জেনারেল দাতুক জামিল বিন রাকন, ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল এ. মানিয়াম, পলিসি ডিভিশনের আন্ডার সেক্রেটারি ড. নুর মাজনি বিনতি আবদুল মাজিদ, ইন্টারন্যাশনাল ডিভিশনের আন্ডার সেক্রেটারি ড. জাকি বিন জাকারিয়া বৈঠকে অংশ নেন।


Share It
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    5
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here