‘বেগম জিয়াকে গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে’ দলটির এমন অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে মনে করেন দুদক আইনজীবী ও আওয়ামী লীগ নেতারা।

তারা বলছেন, বেগম জিয়াকে নিয়ে রাজনীতি শুরু করেছে দলটি। বিএনপি চেয়ারপারসনের এক আইনজীবী, এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে না চাইলেও তিনি বলছেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ বেড়েছে দুই দফা। বিদেশে না যাওয়া, বাসায় চিকিৎসা নেয়া এ দুটি শর্তে তাকে মুক্তি দেয়া হয়।

আইনি প্রক্রিয়া ব্যর্থ হয়ে সরকারের এমন সিদ্ধান্তকে শুরু থেকে স্বাগত জানিয়েছে দলটি। অথচ মুক্তির ৮ মাসে এসে দলটির মহাসচিবের অভিযোগ, নেত্রীকে গৃহবন্দি করে রেখেছে সরকার।

বেগম জিয়া বাসায় থাকাকালীন দলটির শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে দেখা করছেন, নেত্রী চাইলে আইনজীবীসহ যে কারো সঙ্গে আলোচনা করতে পারেন। তারপরও কেনো গৃহবন্দির অভিযোগ তুলছে বিএনপি?

খুরশীদ বলেন, পরিবারের পক্ষের আমন্ত্রণকে স্বাগত জানিয়ে সরকার এটাকে  আদেশ জানিয়েছেন। ওনাদের পারমিশন দেয়া হয়েছে। এখানে গৃহবন্দি কেন বলছে?

বিএনপি নেত্রীর একজন আইনজীবী অবশ্য গৃহবন্দি নিয়ে সরাসরি কোনো কথা বলতে চাননি। তিনি বলছেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে দেশে-বিদেশে চিকিৎসা নেয়ার সুযোগ পাচ্ছে না নেত্রী।

খোকন বলেন, উনি নিজেই চাচ্ছেন বাইরে চিকিৎসা করাতে। কিন্তু সরকার শর্ত না দিলে তো বাইরে চিকিৎসা করাতে পারতেন।

দলটির একটি সূত্র বলছে, বেগম জিয়ার চিকিৎসার জন্য বিদেশি কয়েকটি হাসপাতালে যোগাযোগ করছেন। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে সেটিও সম্ভব হচ্ছে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here