সমালোচনায় পুড়ছে ভারত

Share It
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ইংল্যান্ডের কাছে সাউদাম্পটন টেস্ট হেরে এক ম্যাচ বাকী রেখেই সিরিজ খুইয়েছে সফরকারী ভারতীয় ক্রিকেট দল। দলের পারফরমেন্সের সমালোচনা করে ভারতীয় খেলোয়াড়দের ‘মেরুদণ্ডহীন’ বলছে দেশটির সংবাদমাধ্যম।
ভারতের জনপ্রিয় পত্রিকা টাইমস অব ইন্ডিয়া বলছে, ‘আধুনিক ক্রিকেট ইতিহাসে সেরারূপে ফেরার স্বপ্ন খুব সহজেই পূরণ হতে পারতো কিন্তু মেরুদণ্ডহীন ব্যাটিং-এর কারণে ঘরের বাইরে আরও একটি সিরিজ হারলো কোহলির দল। যা অত্যন্ত হতাশার।’
সিরিজের চতুর্থ টেস্ট জয়ের জন্য ২৪৫ টার্গেট পায় ভারত। কিন্তু ইংল্যান্ড বোলারদের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ করে তারা। চতুর্থ দিনের চা-বিরতির পর ১৮৪ রানেই গুটিয়ে যায় ভারতের ইনিংস। ফলে এক ম্যাচ বাকী রেখে ৩-১ ব্যবধানে এগিয়ে গিয়ে সিরিজ জয় নিশ্চিত করে ইংল্যান্ড।
এর আগে এ বছর দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ হারে ভারত। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সাউদাম্পটন টেস্টেও উভয় ইনিংসে ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছে ভারত। ব্যাটসম্যানদের মেজাজ ও টেকনিক নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন।
ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস শিরোনাম করেছে, ‘যথেষ্ট ভালো পারফরমেন্স ছিলো না এবং এমন হার কষ্ট দিবে ও শেখাবে।’ ইংরেজী দৈনিকটি লিখেছে, ‘তারা খুব কাছে যেতে পারে কিন্তু ব্যর্থই হয়, লক্ষ্য অতিক্রম করতে পারে না।’
পত্রিকাটির রিপোর্টে বলা হয়, ‘প্রতিপক্ষের জন্য কোহলিদের চ্যালেঞ্জ যথেষ্ট নয় এবং প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচ জয়ের উপায় বের করতে হবে ভারতকে।’ ভারতের আরেকটি জনপ্রিয় পত্রিকা দ্য হিন্দুস্থান টাইমস বলে, ‘বিদেশে সাফল্য পাবার সুযোগ তৈরি করে দিয়েছিলো ভারতের বোলাররা। কিন্তু ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থ। কোহলি ছাড়া অন্য ব্যাটসম্যানরা মান ও ধারাবাহিকতা থেকে অনেক দূরেই ছিলো।’
সিরিজের প্রথম চার টেস্টে ৬৮ গড়ে দু’টি সেঞ্চুরি ও তিনটি হাফ-সেঞ্চুরিতে ৫৪৪ রান করেন ভারতের অধিনায়ক কোহলি। চলমান সিরিজে কোহলিই এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক।
সম্প্রতি ব্যাট হাতে নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারছেন না কুক। শেষ ১০ ইনিংসে মাত্র একটি হাফ-সেঞ্চুরি রয়েছে তার। ভারতের বিপক্ষে চলমান সিরিজে সর্বোচ্চ ২৯ রান করেছেন কুক। তাই ভারতের বিপক্ষেই ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় বলার সিদ্বান্ত নিয়েছেন তিনি।
কুকের এমন সিদ্ধান্তকে সাবেক ও বর্তমান খেলোয়াড়রা সাধুবাদ জানান। পাশাপাশি ভবিষ্যতের জন্য কুককে শুভ কামনাও জানান। এমনকি অনেকে বলেছেন, শেষ টেস্টে বড় স্কোর করে বিদায় নিতে। কিন্তু ইংল্যান্ডের সাবেক খেলোয়াড় ও কোচ ডেভিড লয়েড সবার সাথে একমত হতে পারছেন না। কুকের বিপক্ষেই কথা বললেন তিনি।
১৯৯৬ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত ইংল্যান্ড দলের কোচের দায়িত্ব পালন করা লয়েড বলেন, ‘ভারতের বিপক্ষে ওভাল টেস্টে কুককে ইংল্যান্ড দলে দেখতে চাই না। তাকে খেলানোর পক্ষে নই আমি। কুক বলছে, তার সময় শেষ। এর অর্থ, সময় শেষ। তাই আরও একটি টেস্টে তাকে খেলানোর পক্ষে আমি নই। কুক যখন অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তখন আর খেলানোর কোনো প্রয়োজন নেই। ম্যাচের আগে তাকে বড় ধরনের সংবর্ধনা দেওয়া হোক এবং বিদায়ী বক্তব্য দেওয়ার সুযোগও করে দেওয়া হোক। পরবর্তীতে ড্রেসিং রুমে বসে খেলাটা উপভোগ করুক কুক।’
কুককে বিদায়ী টেস্ট খেলতে দেওয়ার পক্ষে না থাকলেও বড় ফরম্যাটে ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারীর প্রশংসা করেছেন লয়েড, ‘অ্যালিস্টেয়ার কুক অসাধারণ খেলোয়াড়। অধিনায়ক হিসেবেও দারুণ করেছে সে। সে ক্রিকেটের দূত। ইংল্যান্ডের হয়ে টানা ১৫৮ টেস্ট খেলার বিশ্বরেকর্ড আছে তার। এমন রেকর্ড বড় বড় খেলোয়াড়রা করতে পারে না, যা সে করেছে। এমনকি দেশের হয়ে সর্বোচ্চ রানও করেছে সে। তার জন্য শুভ কামনা থাকলো।’

Share It
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here