৪০ দিন ক্লাসের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের, না হলে অটোপাস

Share It
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে চলতি বছর অন্তত ৪০ দিন ক্লাস নেয়ার পরিকল্পনা করে প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলার নির্দেশনা জারি করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে, প্রস্তুতি নেয়ার পরও ক্লাস নেয়া সম্ভব না হলে প্রাথমিকের সব শ্রেণিতে অটোপাস বা শিক্ষার্থীদের সরাসরি উত্তীর্ণ করার লক্ষ্য রয়েছে বলে জানান প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব।

এদিকে, জেএসসি’র পরিবর্তে অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের স্ব স্ব স্কুলে মূল্যায়নের নির্দেশনা দেয়ার পর, অন্যান্য শ্রেণির ক্লাস-পরীক্ষার ব্যাপারেও চলতি সপ্তাহেই আন্তঃশিক্ষা বোর্ড চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে।

প্রতিবছর নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকেই প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের বার্ষিক পরীক্ষা শুরু হয়ে ডিসেম্বরের মাঝামাঝি ফলাফল ঘোষণা করা হয়। কিন্তু করোনার থাবায় এবছর শিক্ষাক্ষেত্রে সব পরিকল্পনা বদলে গেছে। গত মার্চ থেকে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করার পর এখনো খোলার সিদ্ধান্ত নেয়া যায়নি। এরইমধ্যে পিইসি ও জেএসসি পরীক্ষা আনুষ্ঠানিকভাবে বাতিল করা হয়েছে।

এ অবস্থায় পরিস্থিতি ভালো হলে অক্টোবর কিংবা নভেম্বরে প্রাথমিক বিদ্যালয়সমূহে ক্লাস নেয়া ও ডিসেম্বরে পরীক্ষা নেয়ার পরিকল্পনা করে গত বৃহস্পতিবার নীতিমালা চূড়ান্ত করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে ক্লাস ও পরীক্ষা নেয়ার প্রস্তুতিও নিতে স্কুলগুলোকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ আকরাম-আল-হোসেন বলেন, প্রত্যেকটা স্কুল একটা রি-ওপেনিং প্লান তৈরি করবে। মাস্ক অবশ্যই বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যদি কোনো স্কুলে শিক্ষার্থীর সংখ্যার বেশি হয়; তাহলে অলটারনেটিভ করে আনার ব্যবস্থা করতে হবে।

তবে, চলতি বছর ক্লাস পরীক্ষা নেয়া সম্ভব না হলে সব শ্রেণিতে অটো পাসের সিদ্ধান্ত বিবেচনা করা হবে।

পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হয়; স্কুলগুলো খোলা সম্ভব হবে না। সেক্ষেত্রে পরীক্ষা মূল্যায়ন করা সম্ভব হবে না। অটোপাস দিতে হবে, কোনো শিক্ষার্থীকে ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে না।

এদিকে, জেএসসি পরীক্ষার পরিবর্তে স্ব স্ব স্কুলে মূল্যায়নের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের নবম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করার নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে স্কুলগুলোতে। আর অন্যান্য শ্রেণির ক্লাস ও পরীক্ষার বিষয়ে শিগগিরই আন্তঃবোর্ড সিদ্ধান্ত নেবে ।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মুহাম্মদ জিয়াউল হক বলেন, ক্লাস পরীক্ষার ব্যাপারে চার-পাঁচদিন পরে আন্তঃশিক্ষা বোর্ডে সিদ্ধান্ত নেয়ার পর জানানো হয়। আর অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের স্কুলে মূল্যায়ন করে পরবর্তী শ্রেণিতে উন্নীত করা হবে।

এইচএইচসি পরীক্ষার ব্যাপারেও শিগগিরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানোর আভাসও দিয়েছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়।

  • সাংবাদিক নিয়োগ : দৈনিক মুক্ত আলো

  • Application Form - আবেদন ফরমটি যথাযথভাবে পূরণ করে নিচের সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন। আবেদন করার আগে নিচে দেওয়া তথ্য গুলি মনোযোগ সহকারে পড়ে নিন।০১৮২৯৪২৪৭৭১ বিকাশ পার্সোনাল, এই নাম্বারে তিনশত টাকা (আবেদন ফি অফেরত যোগ্য) সেন্ড মানি করে নিচে ট্রানজেকশন আইডি উল্লেখ করুন। (অন্যথায় আপনার আবেদন গৃহীত হবে না,তাই আবেদন করার আগে অবশ্যই সেন্ড মানি করে নিবেন)
  • নির্দেশনার টি ভালভাবে পড়ুন

    সাংবাদিক নিয়োগ : দৈনিক মুক্ত আলো জেলা-উপজেলা ও কলেজ/বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে সাংবাদিক/প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে।সারাদেশ থেকে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার সন্তান / নাতী-নাতনীদের ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রকৃত নাগরিকদের আবেদন করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হল – আগ্রহীরা আগামী (৩০/০৯/২০২০ইং) এর মধ্যে আবেদন জমা দিন জমা দিনঃ ০১৮২৯৪২৪৭৭১ বিকাশ পার্সোনাল, এই নাম্বারে তিনশত টাকা (আবেদন ফি অফেরত যোগ্য) সেন্ড মানি করে নিচে ট্রানজেকশন আইডি উল্লেখ করেন। (অন্যথায় আপনার আবেদন গৃহীত হবে না,তাই আবেদন করার আগে অবশ্যই সেন্ড মানি করে নিবেন) সবার আগে দেশ ও বিদেশের সব খবরের পিছনের খবর জানতে ও জানাতে দেশের প্রতিটি জেলায় সংবাদ প্রতিনিধি,থানা প্রতিনিধি, বিশেষ প্রতিনিধি,বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি,ব্যুরো চিফ,ও গুরুত্বপূর্ণ বিটে স্টাফ রিপোর্টার,এবং স্কুল,কলেজ,বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পুরুষ/মহিলা সেচ্ছাসেবী শিক্ষানবিশ সাংবাদিক নিয়োগ করা হবে । প্রর্থীর যোগ্যতা: # শিক্ষাগত যোগ্যতা কমপক্ষে এইচ,এস,সি.অথবা সমমান হতে হবে। # প্রার্থীর নিজেস্ব ল্যাপটপ/ কম্পিউটার থাকলে ( অগ্রাধিকার দেওয়া হবে) # এম,এস,ওয়ার্ডে বাংলায় টাইপিং জানা থাকলে( অগ্রাধিকার দেওয়া হবে) # ক্যামেরা থাকালে( অগ্রাধিকার দেওয়া হবে) # কোন কপি রাইট সংবাদ প্রেরন করা যাবে না। # প্রেরিত সংবাদের সহিত সংবাদ সর্ম্পকিত ছবি/ভিডিও পাঠানোর চেষ্টা করতে হবে।#অভিজ্ঞ প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে। #প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও নাতী-নাতনীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র: পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি আপলোড করুন। জাতীয় পরিচয় পত্রের ছবি আপলোড করুন। শিক্ষার্থীদের জন্য কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইডি কার্ডের ছবি আপলোড করুন। সর্বশেষ শিক্ষাগত যোগ্যতার সার্টিফিকেটের ছবি আপলোড করুন। । অভিজ্ঞতার ক্ষেত্রে: অভিজ্ঞতা সনদের ছবি আপলোড করুন। মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যের ক্ষেত্রে: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সকল কাগজপত্র ছবি আপলোড করুন। নির্বাচিত সংবাদ কর্মীদেরকে যোগ্যতা অনুযায়ী বিশেষ প্রক্রিয়ায় সম্মানী প্রদান করবে । যোগাযোগ: Phone: 01829424771 E-mail: doinikmuktoalo.editor@gmail.com Facebook: https://www.facebook.com/doinikmuktoalo.bd
  • আবেদন ফরম - apply now

  •  

Share It
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here