তিনি শেষ কথাটিও এলাকার উন্নয়নের জন্য বলেছিলেন: তাপস
ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৭৩ নম্বর ওয়ার্ডের প্রয়াত কাউন্সিলর ও দক্ষিণগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মো. শফিকুল ইসলাম শেষ কথাটিও এলাকার উন্নয়নের জন্য বলেছিলেন বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

শুক্রবার (২১ মে) রাতে নগরীর ৭৩ নম্বর ওয়ার্ডের মানিকদিয়া ক্লাব সংলগ্ন মাঠে প্রয়াত কাউন্সিলর মো. শফিকুল ইসলামের জানাজা পর্ব স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্যে মেয়র এ কথা জানান।

তাপস বলেন, ‘শেষ কয়েক দিন আগে আমার সাথে দেখা করে গেলেন। আমাকে বললেন ভাই, আমি একটু অসুস্থ, হাসপাতালে ভর্তি হওয়া লাগতে পারে। কিন্তু তিনি শেষ কথাটিও তার এলাকার উন্নয়নের জন্য বলেছেন। এলাকার কোন কাজটি করতে হবে, সে বিষয়গুলো বিস্তারিত তুলে ধরেছিলেন। আমি আশ্বস্ত করেছিলাম যে, অবশ্যই হবে। আপনি যেগুলো চাচ্ছেন আমরা ইনশাআল্লাহ পর্যায়ক্রমে সেগুলো করব। কিন্তু আজ এখানে দাঁড়িয়ে শুধু সেই কথায় মনে পড়ছে তিনি দেখে যেতে পারলেন না।’

তাপস আরও বলেন, ‘আমাদের সেটাই অঙ্গীকার থাকবে ও প্রতিশ্রুতি থাকবে তিনি যে স্বপ্ন দেখেছিলেন অত্র এলাকার জন্য, এলাকার মানুষের জন্য তিনি যে সকল জনকল্যাণমূলক কাজ হাতে নিয়েছিলেন, ইনশাআল্লাহ আমরা অবশ্যই সেগুলো সম্পন্ন করে তার স্মৃতির প্রতি, তার আত্মার প্রতি আমরা শ্রদ্ধা নিবেদন করব।’

তিনি সবসময় সরলভাবে তার অভিব্যক্তি প্রকাশ করতেন জানিয়ে ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, ‘তার চেহারাটা আমার বারবার মনে পড়ছে। তিনি আমাকে ভাই বলে ডাকতেন, আবার মেয়র বলেও ডাকতেন। যখন থেকে তার প্রয়াণের বার্তা শুনেছি তখন থেকে তার সরল উক্তিগুলো, তার সরল কথাগুলো (ভাষাগুলো) শুধু চোখে ভাসছে। আমি তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই। তার রুহের মাগফেরাত কামনা করি।’

জানাজা পূর্ব স্মৃতিচারণে ঢাকা-৯ আসনের সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘কর্মীদের জন্য তিনি একজন আদর্শ ব্যক্তি ছিলেন। যাকে দেখে তারা অনুপ্রাণিত হতেন। সুতরাং তিনি নাই কিন্তু তার কাজ আমাদের মাঝে থাকবে।’

জানাজা শেষে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মরহুমের মরদেহে ফুলেল শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন।

এ সময় অন্যান্যের মাঝে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী মোর্শেদ হোসেন কামালসহ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীবৃন্দ, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলরবৃন্দ, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সচিব আকরামুজ্জামান ও এলাকাবাসী মরহুমের নামাজে জানাজায় অংশগ্রহণ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here