নেত্রকোনায় ঐতিহাসিক নাজিরপুর যুদ্ধ দিবস পালিত

Share It
  • 21
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    21
    Shares

গতকাল শুক্রবার (২৬ জুলাই) নেত্রকোনার কলমাকান্দায় ব্যাপক কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে ঐতিহাসিক নাজিরপুর যুদ্ধ দিবস।

প্রতিবারের মতো এবারও জেলা ও উপজেলা প্রশাসন এবং বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের জেলা কমান্ড ও কলমাকান্দা উপজেলা কমান্ডের যৌথ উদ্যোগে দিবসটি পালিত হয়।

ঐতিহাসিক এ দিবসটি উপলক্ষে সকাল সাড়ে ১০টায় নাজিরপুর স্মৃতিসৌধে এবং দুপুর ১২টায় লেংগুরায় সাত শহীদের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এ ছাড়া বাদ জুম্মা লেংগুরা জামে মসজিদে এবং একই সময়ে স্থানীয় মন্দির ও গির্জায় বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়।

দুপুর ২টায় লেংগুরা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জেলা প্রশাসক মো. মঈনুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও কলমাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ( ইউএনও) মো. জাকির হোসেনের সঞ্চালনায় মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নেত্রকোনা-১ আসনের সংসদ সদস্য মানু মজুমদার।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোঃ শাহজাহান মিয়া, নেত্রকোণা পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলাম খান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুল খালেক, নেত্রকোণার জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মো. নূরুল আমিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা চন্দন বিশ্বাস ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার সুলতান গিয়াস উদ্দিন প্রমুখ।

এছাড়াও মোহনগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আব্দুল হক, মোহনগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের আহ্বায়ক মো. হাবিবুর রহমান খাঁন, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. আনোয়ার হোসেন, সদস্য সচিব মো. ইয়াসির আরাফাত রনিসহ বৃহত্তর ময়মনসিংহের বিভিন্ন উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও সর্বস্তরের হাজারও জনতা এ অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

উল্লেখ্য, ১৯৭১ এই দিনে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধারা নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুরে (ভবানীপুর) পাক হানাদার বাহিনীর সঙ্গে সম্মুখযুদ্ধে লিপ্ত হন। এ যুদ্ধে বৃহত্তর ময়মনসিংহ জেলার ৭ জন মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন।

শহীদরা হলেন- নেত্রকোনার ডা. আব্দুল আজিজ, ফজলুল হক, জামালপুরের জামাল উদ্দিন, ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলার নুরুজ্জামান, দীজেন্দ্র চন্দ্র বিশ্বাস, ইয়ার মাহমুদ ও ভবতোষ চন্দ্র দাস। এই ৭ শহীদের মরদেহ উপজেলার লেংগুরা ইউনিয়নের ফুলবাড়ী এলাকায় ১১৭২ নম্বর সীমান্ত পিলার সংলগ্ন স্থানে সমাহিত করা হয়।


Share It
  • 21
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    21
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here