তানবির খান, বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুর্যোগকালীন সহায়তা বৃত্তি দিচ্ছে কৃষি বিভাগ। গতকাল ও আজ মিলিয়ে ৫৬ জন শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করা হয়। আরো শিক্ষার্থীকে উক্ত বৃত্তির আওতায় আনা হবে বলে জানা যায়।
বিভাগটির চেয়ারম্যান জনাব চেয়ারম্যান এইচ. এম. আনিসুজ্জামান এর উদ্যোগে বিভাগ থেকে একটি নোটিশ দিয়ে সহায়তা বৃত্তি ঘোষণা করা হয়েছিল।  উক্ত নোটিশে উল্লেখ করা হয়, “করোনা পরিস্থিতিতে সুস্থ ও স্বাভাবিক জীবনে বিঘ্ন ঘটছে। উক্ত পরিস্থিতি বিবেচনা করে কৃষি বিভাগের উদ্যোগে শিক্ষার্থীদের দুর্যোগকালীন সহায়তা বৃত্তি প্রদানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।”  অর্থনৈতিকভাবে অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীদের ১৬ ই মে-র মধ্যে যোগাযোগ এর আহ্বান ছিল এই নোটিশে।
এ ব্যাপারে কৃষি বিভাগের সভাপতি জনাব এইচ. এম. আনিসুজ্জামান বশেমুরবিপ্রবি প্রেসক্লাবকে বলেন, “বিভাগের শিক্ষকদের চাঁদায় একটি তহবিল গঠন করে শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা করা হচ্ছে। কমিটি আবেদনকারী  শিক্ষার্থীদের পারিবারিক অবস্থা বিবেচনা করে সহযোগিতার জন্য নির্বাচন করেছে।   এখন পর্যন্ত ৫০ জন শিক্ষার্থীকে আর্থিক সহযোগিতা করা হয়েছে।  আরো ২০ জনকে দেওয়া হবে।”  তাঁর ব্যক্তিগত তহবিল থেকেও তিনি অনেককে সহযোগিতা করছেন বলে জানান।
দুর্যোগ মুহূর্তে শিক্ষার্থীদের পাশে দাড়ানোয় খুশি বিভাগটির শিক্ষার্থীরা। ৩য় বর্ষের এক শিক্ষার্থী স্বস্তি প্রকাশ করে বলেন, “আমাদের পারিবারিক অবস্থা ভালো না। সম্প্রতি যে ঘূর্ণিঝড়টা হলো, এইসময় আমি আমার শিক্ষকদের পাশে পাচ্ছি, এটা খুবই ভালো লাগছে।”
বিভাগের এমন উদ্যোগে শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে একই বিভাগের চূড়ান্ত বর্ষের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগকর্মী শেখ মেহেদী হাসান, “ক্রান্তিলগ্নে এমন সহযোগিতায় শিক্ষার্থীরা  খুশি। অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে সভাপতি স্যারকে ধন্যবাদ জানাই। তিনি আগামীতেও এমন পরিস্থিতি তৈরি হলে শিক্ষার্থীদের পাশে থাকবে এমন প্রত্যাশা করছি।”
গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধুর জন্মভূমিতে প্রতিষ্ঠিত সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় যা বঙ্গবন্ধুর নিজের নামেই প্রতিষ্ঠিত হয়। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে প্রায় ১৩ হাজার শিক্ষার্থী রয়েছে, যাদের গরিষ্ঠ অংশই মধ্যবিত্ত-নিম্নমধ্যবিত্তবিত্ত পরিবার থেকে উঠে এসেছে।  সর্বশেষ মহামারী করোনায় বিশ্ববিদ্যালয়, শিক্ষকগণ এবং বিভিন্ন বিভাগ শিক্ষার্থীদের পাশে দাড়িয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here