মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহালসহ ১১ দফা দাবিতে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের মানববন্ধন

Share It
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আজ বিকাল ৩ টায় ১লা ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধা দিবসে ১১ দফা দাবিতে ঢাবির টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে মানববন্ধন ও সমাবেশ কর্মসূচী পালন করেছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। সমাবেশের শুরুতে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করে বীর মুক্তিযোদ্ধা তারামান বিবি বীর প্রতীক এর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তাঁর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ১মিনিট নীরবতা পালন করে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতৃবৃন্দ। ১লা ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধা দিবসকে রাষ্ট্রীয়ভাবে স্বীকৃতি প্রদান, মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহাল, মুক্তিযোদ্ধা পরিবার সুরক্ষা আইন প্রণয়ন, সাংবিধানিক স্বীকৃতিসহ ১১ দফা দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ আল মামুন বলেন, ” টাঙ্গাইলের বীর মুক্তিযোদ্ধার সনদপত্র ছিঁড়ে ফেলেছে কুলাঙ্গার চিকিৎসক শহীদুল্লাহ্। এরকম ঘৃণ্য কাজের মাধ্যমে সে মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুকে অপমান করা হয়েছে। আজও পর্যন্ত তার বিচার হয়নি। সারা বাংলাদেশে মুক্তিযোদ্ধা ও তাঁদের পরিবারদের উপর হামলা, নির্যাতন হচ্ছে। যদি মুক্তিযোদ্ধা পরিবার সুরক্ষা আইন প্রণয়ন করা হতো তাহলে এরকম ঘটনা ঘটতো না। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকারের কাছে আমাদের অনুরোধ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ প্রতিষ্ঠার জন্য মুক্তিযোদ্ধা ও তাঁদের প্রজন্মের ১১ দফা দাবি বাস্তবায়ন করুন। অনেক মুক্তিযোদ্ধার সন্তান বেকার অবস্থায় আছে। বঙ্গবন্ধুর দেয়া ১ম ও ২য় শ্রেণীর চাকুরীতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা বাতিল করে মুক্তিযোদ্ধাদের অপমান করা হয়েছে। শুধুমাত্র ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণীর চাকুরিতে কোটা রেখে আমাদের মর্যাদা ক্ষুণ্ণ করা হয়েছে। আগামী ১৬ ডিসেম্বরের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের ১১ দফা দাবি বাস্তবায়ন করতে হবে। আমাদের ১১ দফা দাবি পূরণ হলে মুক্তিযুদ্ধের বিজয় পরিপূর্ণতা লাভ করবে। দাবি না মানলে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ আগামী ১৬ ডিসেম্বর থেকে শাহবাগসহ সারাদেশে অবরোধ কর্মসূচী পালন করবে। বঙ্গবন্ধু ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ছিঁড়ে ফেলে অবমাননা করার অপরাধে ছাত্র ইউনিয়নকে ২৪ ঘন্টার আলটিমেটাম দেয়া হয়েছে। ছবি সরানোর কাজ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের, কোন সংগঠনের নয়। বঙ্গবন্ধু ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অবমাননা করে তারা সংবিধান ও দেশের প্রচলিত আইন লঙ্ঘন করেছে। জাতির কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা না চাইলে ২৪ ঘন্টা পর ছাত্র ইউনিয়নকে ঢাবি ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করবে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ এবং নিষিদ্ধের দাবিতে উপাচার্যের কাছে স্মারকলিপি দিবে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। ” মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো: আল মামুনের সঞ্চালনায় উক্ত মানববন্ধন ও সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল। মানববন্ধন ও সমাবেশে আরোও উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনেট মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক ইয়াসির আরাফাত তূর্য, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার সভাপতি সোহেল রানা, সাধারণ সম্পাদক ইমরান হোসেন, উত্তর শাখার সভাপতি আহমেদ হাসনাইনসহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। মানববন্ধন ও সমাবেশ শেষে টিএসসি থেকে শাহবাগ পর্যন্ত বিক্ষোভ মিছিল করে সংগঠনটি।


Share It
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here