শিরোনাম:ঝুঁকিটা স্বাস্থ্যগত নয়, বরং জীবন ধারণের

Share It
  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    9
    Shares

করোনা ভাইরাসের বিস্তারে দুশ্চিন্তায় পড়েছে ঘরবন্দি সারা বাংলার হাজার হাজার কর্মহীন মানুষ। বিশেষ করে অনুদান নেয়ার জন্য যারা হাত পাততে পারেন না চুক্ষ লজ্জায় -তাদের অবস্থা দিন দিন হয়ে যাচ্ছে দুর্বিষহ। পরিবারের লোকজনকে নিয়ে অসহায় অবস্থায় পড়তে যাচ্ছেন তারা।মুখে ফুটে কিছু বলতে না পারায় পারছেনা ভিতর খানা জ্বলছে।

ইতিমধ্যে অনেকেই সামনের দিনগুলোকে নিয়ে  চোখে অন্ধকার দেখতে শুরু করেছেন।বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সাথে আলাপ করলে তাদের এই অসহায়ত্বের কথা  জানা যায়।

অবশ্য বর্তমানে প্রতিদিনই সর্বোচ্চ আক্রান্ত, সংক্রামিত, মৃত্যুর সংখ্যা যেভাবে বিস্তার লাভ করছে তাতে করে এই অবস্থা দির্ঘায়িত হতে পারে বলে অনেকেরই ধারণা।

করোনার এই মহাদুর্যোগের হাত থেকে রক্ষা পেতে সারাদেশের ৮০% মানুষ বর্তমানে ঘরবন্দি। জরুরী প্রয়োজন ছাড়া বেশির ভাগ মানুষ ঘরের বাইরে যাচ্ছেনা। মানুষের কাছে এখন অর্থের চেয়ে জীবন বাঁচানো জরুরী হয়ে পড়েছে। এ কারনে মানুষ না খেয়ে থাকার পরিস্থিতি  হলে ও তারা  বাইরে বের হচ্ছে না। যদিও প্রাণ বাঁচাতে খাওয়াটাও জরুরী।

করোনার ভয়াবহ  সংকটের মধ্যে সরকারিভাবে অসহায় দুঃস্থদের কমবেশী খাদ্য সহায়তা দেয়া হচ্ছে ছোট-খাটো ব্যবসা, বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরী করেন এমন মানুষের সংখ্যা সুনির্দিষ্ট ভাবে  কেউ বলতে পারছে না। কোনো দপ্তরে এর নির্দিষ্ট কোনো পরিসংখ্যান নেই। কারণ, প্রতিনিয়ত এই সংখ্যা কমবেশি হয়ে থাকে।

এমন মানুষ পরিবারের প্রয়োজনে কারো কাছে হাত পাততে ও পারেননা। সামনের দিনগুলোতে পারবে বলে মনে হয় না। কারণ তাঁরা সব সময় ফিটফাট চলে  এসেছে।

এখন তাদের আর্থিক  কষ্টের বিষয়টি অনেকেই মানতে নারাজ। বিশেষ করে অনুদান  বিতরণ করা জনপ্রতিনিধিরাতো মানতেই চাচ্ছেন না। ফলে এই পর্যায়ের মানুষ কোন অনুদান পর্যন্ত  না পেলেও তারই বাড়ির পাশে  একজন অসচ্ছল ব্যক্তি একাধিক বার পেয়েছে।

করোনাভাইরাসের কারণে  খেটে খাওয়া মানুষরা বড় বিপাকে। তাদের ঝুঁকিটা শুধু স্বাস্থ্যগত নয়, বরং তার চেয়ে অনেক বেশি জীবন ধারণের। তাদের স্বাস্থ্যঝুঁকিটাও অন্যদের থেকে বেশি। তবে করোনা মহামারীর কারণে নিম্ন আয়ের এ সুবিধাবঞ্চিত মানুষগুলো স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি নিয়ে যতটা উদ্বিগ্ন, তার  থেকে বেশি উৎকণ্ঠিত ক্ষুধা নিবারণের জন্য।

লেখক:শিক্ষার্থী;মো ফাহাদ বিন সাঈদ,
ফিল্ম এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ,
জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়। ত্রিশাল,ময়মনসিংহ।
মোবাইল:মো ফাহাদ বিন সাঈদ,
fahadbinsayed09@gmail.com


Share It
  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    9
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here